ব্যবসা পরিচালনায় প্রতিদিন যেভাবে স্মার্ট হয়ে উঠবেন
লিখেছেন প্রশান্ত চিত্ত, মার্চ ৩১, ২০১৪ ৭:১২ অপরাহ্ণ

নতুন ব্যবসা শুরুর সময় একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ‘শেখা’। একসঙ্গে কোনো বিষয়ের সম্পূর্ণটা শেখা সম্ভব হয় না। এজন্য কয়েকটি ধাপে ছোট ছোট পদক্ষেপে শিখতে হয়। এ বিষয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ফোর্বস।


যখন আপনি একটা ব্যবসা শুরু করেন তখন যেমন অনিশ্চয়তা থাকে তেমন পথের কোনো দিশাও থাকে না। এছাড়া আরো যেসব বিষয় লক্ষ্যনীয় তা হলো-
প্রথমত, সবকিছু দ্রুত পরিবর্তন হয়
দ্বিতীয়ত, আপনি নিশ্চিত নন, কোথায় আপনার যাওয়া উচিত
তৃতীয়ত, আপনার কাছে কোনো মানচিত্র নেই।
এ ধরনের অনিশ্চিত অবস্থায় অনেক কিছু বোঝা যায় না। কিন্তু যারা দুই বা তার বেশি সফল প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছেন, তারা সবচেয়ে ভালোভাবে অনিশ্চিত পরিস্থিতি সামলাতে পারেন। এর কারণ হিসেবে জানা যায়, ব্যবসা শুরুর মতো অনিশ্চিত অবস্থা আর হয় না। সফল ব্যবসায়ীরা এক্ষেত্রে যা যা করে তা হলো-
১. তাদের গন্তব্য নির্ণয় করে। যেমন তারা নির্ণয় করে কাজের ঠিক কোন অংশটি তাদের আনন্দিত করে।
২. ছোট পদক্ষেপে কোনোকিছু খুঁজে বের করা বা কোনো কাজের মাধ্যমে এগিয়ে যাওয়া, যা তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে সাহায্য করে।
৩. প্রত্যেক ছোট পদক্ষেপ থেকে বাস্তবতা জেনে নেওয়া।
৪. পুরনো পদক্ষেপ থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন পদক্ষেপ নেওয়া। এভাবে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া।
৫. এভাবেই শেখা, তৈরি করা, পুনরায় করা এবং এর মাধ্যমে এগিয়ে যাওয়া।
এ পদক্ষেপের কেন্দ্রে রয়েছে শিক্ষা। প্রত্যেকবার একটি ছোট পদক্ষেপে আপনার লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। এরপর আপনি দেখা শুরু করবেন যে, সেই পদক্ষেপ থেকে কি শেখা গেল।
এক্ষেত্রে একটি সমস্যা দেখা দেয় ইগো সংক্রান্ত। অনেকেই ধারণা করতে পারেন, আমি এক্ষেত্রে একটি ব্যবসা চালাই এবং আমার চেয়ে কে বেশি জানে? অনেকের কাছেই ছোট ছোট পদক্ষেপগুলো তুচ্ছ বলে মনে হয়। কিন্তু শেখার বিকল্প অন্যকিছু হতে পারে না। ব্যবসা ক্ষেত্রে আপনার পণ্য, বাজার, ক্রেতা ও সম্ভাব্য ক্রেতা সম্বন্ধে প্রতিনিয়ত নতুন বিষয় শিখতে হবে। এভাবে সবকিছু আত্মস্থ করার মাধ্যমে আপনি ব্যবসায় সাফল্য লাভ করতে পারবেন।

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ।

পোস্টটি ৩৯৬ বার পঠিত
 ১ টি লাইক
০ টি মন্তব্য

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.