স্বাস্থ্যকর সুখী জীবনের জন্য সবচাইতে জরুরী ২০টি টিপস
লিখেছেন ওসি সাহেব, অক্টোবর ২৬, ২০১৪ ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

সুস্বাস্থ্য এবং সুখী জীবন সকলেরই কাম্য। স্বাস্থ্য ভালো তো সবই ভালো। স্বাস্থ্যের সাথে মনের একটি অনেক বড় সংযোগ রয়েছে। একজন সুস্বাস্থ্যের অধিকারী মানুষ নিজের সুখের জন্য পথ তৈরি করে নেবেন নিজে থেকেই। অপরপক্ষে একজন অসুস্থ মানুষ চাইলেও মনকে সুখ দিতে পারেন না।
তাই সুস্বাস্থ্য এবং সুখী জীবন যাপনকে লক্ষ্য রেখে সকলকেই নিতে হবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে নিজেকে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী করে তোলার জন্য। মানসিক ভাবে সুখী করার জন্যও করতে হবে কিছু কাজ। জানতে চান সেই সকল অভ্যাস ও কাজের কথা। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক আমাদের আজকের ফিচারটি।

সুস্বাস্থ্য পেতেঃ

১) প্রতিদিন ৬-৮ গ্লাস পানি পান করুন। পানির ওপর নাম জীবন।
২) সময়মতো এবং পরিমাণ মতো খাওয়া দাওয়া করুন। কথায় বলে, ‘ সুস্বাস্থ্যের জন্য সকালের নাস্তা রাজার মতো, দুপুরের খাবার রাজপুত্রের মতো এবং রাতের খাবার ভিখিরির মতো করা উচিৎ’।
৩) উদ্ভিজ্জ খাদ্য গ্রহনের চেষ্টা করুন অর্থাৎ শাকসবজি ফলমূল বেশি রাখুন খাদ্য তালিকায়। এবং শুধুমাত্র প্রয়োজন অনুযায়ী মাছ, মাংস খান।
৪) দিনে ১০ মিনিট হাটার চেষ্টা করুন।
৫) লিফটের বদলে সিঁড়ি ব্যবহার করুন।
৬) দিনে অন্তত ১০ মিনিট অন্ধকার স্থানে চুপচাপ চোখ বন্ধ করে বসুন।
৭) ৬-৮ ঘণ্টা নিয়মিত এবং নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। বেশি রাত জাগবেন না।
৮) প্রতিদিন মাত্র ১৫ মিনিট সময় বের করে ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন।
৯) মাসে অন্তত ১ টি বার নিজেকে ২ দিনের ছুটি দিয়ে ঘুরে আসুন পছন্দের কোনো স্থানে।
১০) শরীরকে কষ্ট দিয়ে কোনো কাজ করতে যাবেন না। আপনার যতোটুকু ক্ষমতা ততোটাই কাজ করুন।

সুখী জীবন পেতেঃ

১) প্রান খুলে হাসুন। সকলকে মিষ্টি হাসি উপহার দিন।
২) নিজের সাথে অন্য কারো তুলনা করতে যাবেন না কখনোই। আপনি আপনার স্থানে সম্পূর্ণ ভিন্ন একজন মানুষ।
৩) নেতিবাচক সকল ধরণের চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। যারা নেতিবাচক চিন্তা করেন তাদের জীবনে ইতিবাচক ঘটনা বেশ কমই ঘটে।
৪) আয় বুঝে ব্যয় করুন। নিজের সীমার বাইরে যাবেন না কখনোই। একবার সীমার বাইরে চলে গেলে জীবনটাই অগোছালো হয়ে যেতে পারে।
৫) সময় নষ্ট করবেন না একেবারেই। যতোটুকু সময় পান কাজ করুন। বাকি সময় নিজের জন্য এবং নিজের পরিবারের জন্য রাখুন। জীবনে উন্নতি ও সুখ পাবেন।
৬) রাগ, ঈর্ষা, হিংসা, লোভ-লালসা ধরণের আবেগগুলো নিজের থেকে দূরে রাখুন। নিজের ওপর নিয়ন্ত্রন রাখুন যতোটা সম্ভব।
৭) অতীত থেকে যা শিক্ষা নেবার তা নিয়ে অতীত ভুলে যান। অতীতে কি করতে পারতেন কি পারতেন না তা এখন চিন্তা করে কোনোই লাভ নেই। এটি শুধুই বর্তমানকে নষ্ট করে।
৮) মানুষকে ভালোবাসুন। জীবনটা অনেক ছোট। এখানে অন্য একজনকে ঘৃণা করে কাটানোর মতো সময় একেবারেই নেই।
৯) ক্ষমা করে দিতে শিখুন। এতে মনের শান্তি ফিরে পাবেন।
১০) সবসময় ন্যয়ের পক্ষে কথা বলুন। আদর্শে জীবন চলে না, কিন্তু আপনি আদর্শ অনুসরণ না করলে জীবনে শান্তি পাবেন না। মনে সুখ আসবে না।

সূত্রঃ স্বাস্থ্য তথ্য

পোস্টটি ২৯৩ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
১ টি মন্তব্য
একটি মন্তব্য করা হয়েছে

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.