মুখের আলসার সমস্যায় জেনে নিন ১২ টি ঘরোয়া সমাধান
লিখেছেন ওসি সাহেব, ডিসেম্বর ৯, ২০১৪ ৫:৩৫ অপরাহ্ণ

অনেকের মুখেই আলসার হয়ে থাকে যা অনেক কষ্টদায়ক। বিশেষ করে ঠোঁট, জিভ, মুখের ভিতরে আলসার হয়ে থাকে। অনেক মানুষই তার জীবনে একবার এবং একাধিক বার আলসার সমস্যায় ভুগে থাকেন এটি খুব পরিচিত একটি সমস্যা, বিশেষ করে নারী ও প্রাপ্ত বয়স্কদের আলসার হয়ে থাকে এবং এই সমস্যাটি অনেক যন্ত্রনাদায়ক। এই সমস্যাটি হওয়ার কারণ যদিও সঠিক ভাবে জানা যায়নি তবে ধারনা করে হয়ে থাকে খুব বেশি দুশ্চিন্তা, দেহে হরমোন সমস্যা, পেটের সমস্যা ইত্যাদি কারণে মুখে আলসার সমস্যা হয়ে থাকে।

23_7221.gif

তবে এই সমস্যা দেখা দিলে কোন কিছু খেতে খুব কষ্ট হয়ে থাকে। মুখে খাবারের স্বাদ লাগেনা ও ঝাল জাতীয় কোন কিছু খেতেও খুব কষ্ট হয়ে থাকে। তাই মুখে আলসার সমস্যা দেখা দিলে ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। তবে এই সমস্যার সমাধান আপনি ঘরে বসেই করতে পারেন। জেনে রাখুন সমস্যার সমাধান সম্পর্কে।

১। লবন অথবা বেকিং সোডা কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। তারপর সেই পানি দিয়ে কুলি করুন ভালমত এবং এইভাবে প্রতিদিন ২ থেকে ৩ বার কুলি করুন।

২। মুখের ভিতর অনেক সময় আলসার হয়ে থাকে ভিটামিন-সি এর কারণে। তাই প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি জাতীয় খাবার এবং কমলা বা কমলার জুস খান।

৩। প্রথমে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে কুলি করুন তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে কুলি করুন এই কাজটি খুব দ্রুত মুখের আলসার সমস্যার সমাধান করে।

৪। তাজা নারিকেল দুধ দিয়ে প্রতিদিন ৩-৪ বার কুলি করুন, এই কাজটি মুখের আলসারের ব্যথা কমিয়ে দেবে ও মুখের ভিতরটা পরিষ্কার রাখবে।

৫। মুখের আলসার সমস্যায় চুইংগাম খাওয়া থাকে বিরত থাকুন কারণ চুইংগাম চাবানোর সময় মুখের ভেতরে কামড় লাগতে পারে।

৬। এই সমস্যায় চা ও কফি খাওয়া সম্পূর্ণ নিষেধ।

৭। মুখের আলসার দূর করতে দুগ্ধ জাতীয় খাবার যেমন- দই, বাটারমিল্ক খেলে ভালো।

৮। সালফারযুক্ত খাবার যেমন- পেঁয়াজ, এটি মুখের আলসার এর জন্য ভালো। চাইলে সালাদে পেঁয়াজ দিয়ে খেতে পারেন।

৯। এই সমস্যায় মাছ ও মাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকা প্রয়োজন। কারণ এই খাদ্য দেহে এসিডিটির মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।

১০। কোন শক্ত জাতীয় খাবার না খাওয়াই ভালো এই সমস্যায়। এমন কোন খাবার খান যা চিবুতে সহজ।

১১। ঝাল, গরম ও এসিড জাতীয় খাবার এই সমস্যায় খাওয়া নিষেধ।

১২। এই সমস্যায় ব্রাশ করার জন্য ব্যবহার করুন খুব নরম বেবি ব্রাশ। যেকোন খাবারের পরেই ব্রাশ করে নিন বা ভালোমত কুলি করে নিন যেন খাবারের কণা মুখে না রয়ে যায়।

সূত্রঃ 

 

Comments

comments

পোস্টটি ৩১৪ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
১ টি মন্তব্য