কাশি নিরাময়ে মধু
লিখেছেন ওসি সাহেব, ডিসেম্বর ১, ২০১৪ ৯:০৩ অপরাহ্ণ

Honey as a Cough Suppressant

>প্রথমেই একটা কথা বলে রাখা ভালো যে সর্দি যুক্ত কাশির জন্য মধুর পরিবর্তে এমন কোন ঔষধ খাওয়া ভালো যা ভেতর থেকে সর্দি বের করে নিয়ে আসতে সাহায্য করবে। মধু বরং উল্টো কফ বের হতে বাধা দান করে।

>মধু মূলত উপকারী খুসখুসে কাশির জন্য। এটি গলার ভেতরে আবরন তৈরী করে এবং গলার ভিতরে যেইসব সেন্সরি নার্ভ খুসখুসে অনুভূতি তৈরী করে তাদের বাধা দান করে গলাকে আরাম দেয়।

> বিশেষ করে ঘুমানোর সময় মধু খেয়ে ঘুমালে রাতে ঘুমের মধ্যে খুসখুসে কাশিটা উঠবেনা ফলে আরামে ঘুম হবে।

> মধু শুধুও খাওয়া যেতে পারে আবার গরম পানি বা চায়ের সঙ্গে শুধু অথবা লেবু দিয়ে খাওয়া যেতে পারে।

>খুসখুসে কাশির জন্য যেইসব ওষুধ বাজারে প্রচলিত তাদের মধে আছে phocodine, dextromethorphan and codeine জাতীয় ঔষধ। মধু এইসব ঔষধের মত একই ধরণের কাজ করে। বরং ২০০৮ সালে Penn State College of Medicine এর একদল গবেষকের করা গবেষনায় দেখা গিয়েছে যে মধু বরং এইওসব ওষুধের চাইতে ভালো কাজ করে।

> বিশেষ করে ৬ বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের জন্য dextromethorphan এর বেশ কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। তাই এদের কাশির চিকিৎসায় মধু পার্শ্বপ্রতক্রিয়াহীন ভাবে খুব ভালো ভুমিকা রাখতে পারে।

>তবে এক বছরের কম বাচ্চাদের মধু না দেওয়াই ভালো। কারণ এতে এমন একটি ব্যাকটেরিয়ার স্পোর থাকে যা এক বছরের কম বাচ্চাদের “বটুলিসম” রোগের জন্য দায়ী। এক বছরের বড় বাচ্চাদের জন্য মধু নিরাপদ।

>কাশিতে আরাম দেওয়ার পাশাপাশি এতে আছে এন্টি অক্সিডেন্ট, আছে জীবানুনাশক গুণ, নেই কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আর দামেও সস্তা।

তথ্যসূত্রঃ
http://www.livestrong.com/ar…/98305-honey-cough-suppressant/
http://wholesomebabyfood.momtastic.com/infantbotulismhoney.…

Comments

comments

পোস্টটি ১৫৯৪ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
২ টি মন্তব্য