“মিস ইউ আম্মু”
লিখেছেন নাসরিন সিমা, মে ১১, ২০১৪ ৯:৫৪ পূর্বাহ্ণ

খুব ছোটবেলায় আব্বুকে হারানোর পর আম্মুই আমাদের সব ছিলেন। আমরা চারবোন, ভাই নেই। আমিই সবার বড়, তখন বয়স ছিলো আট বছর। ছোট তিনবোন অনেক ছোট। আমার মনে হতো আম্মুর মায়া, মমতার চেয়ে কাঠিন্য আচরণটায় বেশী। আসলে জীবন যুদ্ধে একাকী চলার সিদ্ধান্ত নিতে গেলে কাঠিন্যকে সঙ্গী করাটা বিশেষভাবে জরুরী, এখন তাই মনে হয়। কারণ আমি দেখেছি আম্মু এতো এতো সমস্যার মোকাবেলা করতে গিয়ে যেন হাঁফিয়ে উঠতেন, গভীর রাতে ঘুম থেকে জেগে গেলে দেখতাম আম্মু কাঁদছেন, জায়নামাজে সেজদায় মুখ গুঁজে কাঁদছেন। সর্বপ্রথম যে বিষয়টা নিয়ে সমস্যা শুরু হয় সেটা হলো, নানা, মামারা আম্মুকে নিজেদের কাছে নিয়ে যেতে চাইলে আম্মুর জোর প্রতিবাদ, অসম্ভব! এটা হতেই পারেনা! তিন চার বছর এ নিয়ে মামাদের চেষ্টার অন্ত ছিলোনা, মাঝে মাঝে খুব রাগারাগি। এরপর শুরু হয় জমিজমা নিয়ে……… মোটকথা আজ অব্দি লেগেই আছে হাজারো সমস্যা। আজ বুঝি আম্মু এতোটা কঠিন মানুষ না হলে কবেই হাল ছেড়ে বসে থাকতেন। অনেককে দেখেছি, দুধের শিশুকে রেখে অন্যত্র বিয়ে করতে, শশুরবাড়ীর অত্যাচার বিধবা নারীদের উপর অনেক বেশী হয়, সে ক্ষেত্রে অনেকে সন্তান রেখে বাবার বাড়ি গিয়ে থাকে। আজ একটা ঘটনা শেয়ার করবো বলে আম্মুকে নিয়ে লিখছি। ঐ যে মনে হতো আম্মু খুব কঠিন মানুষ, আমাদেরকে খুব একটা ভালোবাসেনা। ঘটনাটা ২০০২ সালের তখন আমি এইটে পড়তাম, যদিও গ্রামে থাকতাম, তবুও স্কুল ছিলো থানা শহরের প্রথম সারীর এক স্কুল, বাসে যাতায়াত করতাম। এখন বুঝি আম্মু চেষ্টার কোনরকম ত্রুটি রাখেননি। একদিন স্কুল থেকে ফিরছিলাম, গ্রামের একজন মহিলা বললেন, দ্যাখোতো মা কী অবস্থা! তোমার মাতো এই পর্যন্ত পাগলের মতো ছুটে এসেছিলো! আমি আকাশ থেকে পড়লাম যেন, বললাম কেন? উনি বললেন, রুনার (আমরা একই স্কুলে পড়তাম, একই সাথে যাতায়াত করতাম) মা তোমার আম্মুকে নাকি কাঁদতে কাঁদতে যেয়ে বলছে, তোমরা যে বাসে আছো সেই বাস এক্সিডেন্ট করছে আর সাথে সাথে নাকী তোমার আম্মু চিৎকার দিয়ে ছুটতে শুরু করেছে। আমিও দেখলাম, প্রথমে অবাকই হইছি, তোমার আম্মুতো কখনো এরকম ছন্নছাড়া হয়ে বাইরে আসেইনি, সবসময় পর্দা করে বের হতো। তোমাদেরকে দেখতে পেয়ে এই কিছুক্ষণ আগে বাড়ি গেলো………… আমি আমার অশ্রু সেদিন আটকাতে পারিনি, মনে হচ্ছিলো ছুটে গিয়ে আম্মুকে জড়িয়ে ধরি, আর সব অবাধ্যতার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিই। বাড়িতে গেলাম ঠিকই, কিন্তু আম্মুকে জড়িয়ে ধরতে পারলামনা, প্রতিদিনের মতো নিজের রুমে ঢুকলাম। আজ ঘটনাটা মনে হওয়ায় আম্মুকে খুব মিস করছি।

পোস্টটি ৫৮৪ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
৪ টি মন্তব্য

Leave a Reply

4 Comments on "“মিস ইউ আম্মু”"

Notify of
avatar
Sort by:   newest | oldest | most voted
শুকনোপাতার রাজ্য
Member

:) :) :)

প্রশান্ত চিত্ত
Member

পৃথিবীর সব মায়েরা এত স্বার্থহীন হয় কেন ? মিস ইউ মম :(

wpDiscuz