নিরব অশ্রু
লিখেছেন নাসরিন সিমা, জুলাই ২, ২০১৪ ১:৫২ অপরাহ্ণ

নিঃশব্দ কান্নার অর্থ জানা সকলের সাধ্য নয়,
সেখানে গুমরে ওঠে কারো অতীত বর্তমান,
অথবা অন্ধকারাচ্ছন্ন ভবিষ্যৎ!
সতেজ, সবুজকেও  তখন বিবর্ণ মনে হয়!
আজীবন ধীক্কার দেয় কেউবা জন্মের ভাগ্যটাকে,
তিল তিল করে গড়ে তোলা নিজস্ব স্বত্তাকে বড্ড মূল্যহীন মনে হয়!!

তবুও সে চলে অন্যদের মতো করে,
অন্ধকার পেরুলেই হাসি খুশি সতেজ প্রাণ
যেন সুখ ইহাকেই বলে!
কখনো তার অন্তঃকরণ অনুসন্ধান করেছ তুমি?
জানতে চেয়েছ কেমন আছে সে?
নাকী ভোরের বিভার সাথে মিলিয়ে
ওর চমৎকার হাসিটাকেই তোমার দেয়া সুখ ভেবেছ?

তোমরা কঠিণ প্রাণ বড়!
জীবনকে মূল্যায়ন করো গুটিকয়েক বস্তুগত সমৃদ্ধি দিয়ে,
ইট, কাঠ, পাথরের প্রাণ কী তোমাদের?
তবে বড় ভূল থেকে যায় তোমার দায়িত্বের চৌহদ্দিতে!
জবাবদিহীতার বাপারে  জানো কী?!
সাবধান! ঐ রবের মুখেমুখি হওয়ার আগেই শুধরে নাও নিজেকে!

পোস্টটি ৩৮৪ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
২ টি মন্তব্য
২ টি মন্তব্য করা হয়েছে
  1. খুব সুন্দর কাব্য… :)

  2. তোমরা কঠিণ প্রাণ বড়!
    জীবনকে মূল্যায়ন করো গুটিকয়েক বস্তুগত সমৃদ্ধি দিয়ে,
    চমৎকার বলেছেন। :)

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.