কবিতা
লিখেছেন নাসরিন সিমা, মার্চ ১৭, ২০১৪ ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ

যখন পড়তে থাকি কবি ফররুকের লেখা তখন মনে হয় নিজ হাতে যেন দায়িত্ব নিই সেই পান্জেরীকে ডাকার, তাঁর মতো করেই বলতে ইচ্ছে করে,
“এখনো তোমার ঘুম ভাঙ্গলোনা, তুমি জাগলেনা”
নাহ! পারিনি আজও কতোবারই তো এ সমাজের ঘুমিয়ে থাকা পান্জেরীদের ঘুম ভাঙ্গাতে চেয়েছি।
যখন পড়ি কবি নজরুলের লেখা,
তখন নির্বিবাদে দুটি লাইন মনের কোণে বাজতে থাকে,
“উহারা প্রচার করুক হিংসা বিদ্বেস আর নিন্দাবাদ
আমরা বলিব সাম্য, শান্তি এক আল্লাহ জিন্দাবাদ”
খুব প্রশান্তির সুবাতাস লেগে আছে যেন এদুটি লাইনে, সতেজ মন নিয়ে তখন নতুন উদ্যোমেই কাজ শুরু করি।
যখন পড়ি রবীন্দ্রনাথ, জীবনানন্দ দাশ
তখন প্রেমের আবেশ ছড়িয়ে পড়ে পুরো স্বত্তা জুড়ে, আর ভাবি এটাইতো জীবনের একমাত্র মূল্যায়ন।
কিন্তু তখনই মনে পড়ে যায় আল মাহমুদের সেই কবিতার (বখতিয়ারের ঘোড়া) শেষের চারটি লাইন, “আজ আবার হৃদয়ে কেবল যুদ্ধের দামামা
মনে হয় রক্তেই ফায়সালা।
বারুদই বিচারক। আর
স্বপ্নের ভেতর জেহাদ জেহাদ বলে জেগে ওঠা।”
তখনই সব ফেলে আমারও ছুটতে ইচ্ছে করে, শহিদী মৃত্যুর কোল ঘেঁষে, হযরত সুমাইয়ার মতো, আসমা বেলতাগী, হাওলাদের মতো নিষ্পাপ হতে!!

পোস্টটি ৪৮০ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
২ টি মন্তব্য
২ টি মন্তব্য করা হয়েছে
  1. শহিদী যে অমোঘ পাওয়া

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.