ফেইসবুকে বাংলা ভাষার বিকৃত ব্যবহার
লিখেছেন অনবরত বৃক্ষের গান, ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৮ ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ
10985364_733774050074319_6227101655205332354_n

” ফেইসবুকে বাংলা ভাষার বিকৃত ব্যবহার “
………………………
ফেইসবুক ব্যবহারকারী হিসেবে আমার অভিজ্ঞতা মাত্র তিন বছরের কিছু কম।বিগত বছরে কতো অভিজ্ঞতা,আনন্দ,ভালো-মন্দের সাক্ষী করেছে,এ জনপ্রিয় গণমাধ্যম।রাজনীতি,অর্থনীতির খবর রাখা যেমন আদারব্যাপীদের জন্য সহজ হয়েছে, তেমনি কনে-বর দেখা,বিয়ে -সবই সাধন করেছে, ফেইসবুক। আজকে সে বিষয় নিয়ে বলব না,অন্যদিন।

ফেইসবুকে যে বিষয়টি কষ্ট দিয়েছে,ব্যবহারকারীরা বাংলা ভাষাকে যথাযথ ব্যবহার করার বেলায় কতোটা অসর্তক জানি না,তবে অনেকেই বিষয়টি হয়তো সিরিয়াসলি নিচ্ছেন না।
বাংলা শব্দের যথেচ্ছ ব্যবহার করছেন,কেউ বা মিশ্র ভাষা ব্যবহারে অভ্যস্ত হচ্ছেন।অনেকে এমন শব্দ ব্যবহার করছেন,যার কোন অর্থই হয় না। না ট্রানসলিটারেশন(Transliteration) হচ্ছে,না ভাষান্তর(Translation) হচ্ছে।কেউ হয়ত যুক্তি টানবেন,তাড়াহুড়ায় কিংবা কথোকপনে এতো শুদ্ধ শব্দ ব্যবহারের সময় কই।মানলাম আপনার যুক্তি,আপনার ইনবক্সের খবর আপনিই রাখুন,কিন্তু কোনো পোষ্ট শেয়ার,কমেন্ট করছেন, সেখানে আপনি অদ্ভূত বিকৃত শব্দ ব্যবহার করছেন।আমার আপত্তি এখানেই,কেন বলুন তো।
🔷 বিশ্বায়নের যুগে ফেইসবুক একটি গ্লোবাল সামাজিক মাধ্যম।এখানে আপনার ভাষাকে যেভাবে রিপ্রেজেন্ট করবেন,অন্যেরা আপনার ভাষাকে তেমনি মূল্যায়ন করতে শিখবে।
🔷আপনি যদি সেলেব্রিটি হন,অনেকে আপনার ভাষা, প্যার্টান ফলো করে,তারা অসুন্দরভাবে ভাষাকে ব্যবহার করতে উৎসাহী হতে পারে।
🔷যুবসমাজের একটা বড়অংশ ফেইসবুক ব্যবহার করেন,যারা এ বিকৃত ভাষা ব্যবহারে অভ্যস্ত হয়ে উঠতে পারে,যা কি না বাংলা ভাষা-সাহিত্যের জন্য আদৌ কল্যাণকর নয়।
নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই শেয়ার করি,বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক বান্ধবীদের দেখেছি,যারা যোগাযোগ মাধ্যমে চ্যাটিং এ অভ্যস্ত,(মিশ্র ভাষাও বলা চলে না,জগাখিচুরি বলা যায়।)যাদের পরীক্ষায় লিখতে বানান ভুলের সংখ্যা বেশী।
🔷বাংলা ভাষাকে যাচ্ছেতাই ব্যবহার করার, আপনার অধিকার আছে কি?ভাষা শহীদের রক্তের প্রতি সামান্য সম্মানবোধ থাকে,তবে এটি আপনি করতে পারেন না।
🔷তথ্য-প্রযুক্তির যুগে ফেইসবুক সাহিত্য-শিল্প চর্চার বড়ো প্লাটফর্মও বটে,সেখানে আপনি-আমি কি পারি না,মাতৃভাষাকে সুন্দর করে উপস্থাপন করতে।
🔷অনেকে আবার এ যথেচ্ছ ব্যবহার করে নিজেকে আধুনিক মনে করেন,ব্যক্তিগত ভাবে এমন ব্যক্তিদের সবচে’ রুচিহীন মনে হয়।আমরা সবাই জানি যে,আমাদের অনুসরণীয় আর্দশ রাসূল(সা) সবসময় শুদ্ধ ভাষায় কথা বলতেন,অসুন্দর -অশুদ্ধ,আঞ্চলিক শব্দমিশ্রিত করেও বলতেন না কখনো।
🔷আর একটি বিষয়,খুব বিরক্তকর, বেখাপ্পা লাগে।কেউ টেক্সট করেন, বাংলা-ইংলিশ শব্দ মিলিয়ে,যার ভাব উপলব্ধি করাও অনেক সময় দুঃসাধ্য। এখানে বোধ হয়,যেকোন একটি ভাষারীতি অনুসরণ করা যেতে পারে।সবচে’ বড়ো কথা, মানুষ অভ্যাসের দাস,এসব অসুস্থ সংস্কৃতি চর্চা,ভাষার লালিত্য নষ্ট করে দেয়।
🔘 আহ্বানঃআমরা কি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে পারি না,সোস্যাল মিডিয়া তো বটেই, সর্বত্র মাতৃভাষাকে সুন্দর করে ব্যবহার করব।

(লেখাটা লিখতে বসেই মনে হলো,কাল থেকে ফেব্রুয়ারী মাসের শুরু।যে মাসকে আমরা ভাষার মাস বলি।মাতৃভাষার প্রতি ভালোবাসা,প্রীতিবোধ জেগে ওঠে,কেউবা চেতনার রমরমা ব্যবসা খুলে, নিজের আখের গুছিয়ে নেন।নীতিবাচক শুরু করা হয়ত ভালো হয়নি,তবুও কি বলব (যখন লিখছি,দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ব্লক ফেস্ট এ, উচ্চ শব্দে বাজছে ভিনদেশী গান(তাও অর্থ যদি ভালো হতো😞)।যাইহোক,তারাই আবার মাতৃভাষাপ্রেমী হয়ে উঠবেন,শহীদ মিনারে ফুল দিতে ছুটবেন(থাক না এসব,আর না বলি মনের দুঃখ😞।)

(উল্লেখ্য: কিছু ইংরেজী শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে,যথার্থ ভাবপ্রকাশের নিমিত্তে)

পোস্টটি ২০৯ বার পঠিত
 ১ টি লাইক
১ টি মন্তব্য

Leave a Reply

1 Comment on "ফেইসবুকে বাংলা ভাষার বিকৃত ব্যবহার"

Notify of
Sort by:   newest | oldest | most voted
ভোরের পাখি
Member
ভোরের পাখি

আসলে এটা শুধু একটা সিদ্ধান্তের অপেক্ষা। যে, যেখানে বাংলা সেখানে কেবল বাংলাই বলবো/ লিখবো। গুরুচন্ডালী দোষটা এখন সাধু-চলিত না, বরং বাংলা-ইংরেজি মিলে হয়ে যাচ্ছে। :(

wpDiscuz