এটা কি মানসিক রোগ?
লিখেছেন FM97, জুলাই ৮, ২০১৫ ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ

কিছু কিছু মা’রা নিজের ছেলেদের বিয়ে করাতে দেরি করেন। কারণ- তাদের ধারণা-“ছেলেকে বিয়ে দিয়ে দিলে সে আর ঘরের দিকে খেয়াল রাখবে না, বৌয়ের হয়ে যাবে, তাই আরো দিন যাক”। উনারা ছেলের দিকটা চিন্তা করেন না। সেক্ষেত্রে ছেলের বয়স ৩৫ হয়ে গেলেও একই কথা। আবার কিছু মা আছেন- ছেলে বিয়ের পরে বৌয়ের সান্নিধ্যে থাকবে, সেটাও পছন্দ করেন না। বৌয়ের সাথে একটু বেশি সময় থাকলেও ওনারা ধারণা করেন- “আমার ছেলে আমাকে অগ্রাহ্য করছে”- যদিও বিষয়টা তেমন না। এদিকে কিছু মা’রা এসব ধারণা চেপে রাখলেও কেউ কেউ আবার এসবের বিকৃত বহিঃপ্রকাশ ঘটান- যেটা অবশেষে বিয়ে পর্যন্ত ভেঙ্গে দেয়। বিয়ে ভাঙ্গনের কথা শুনে অনেকে হয়ত অবাক হচ্ছেন, তাহলে একটা বাস্তব ঘটনা বলি-

চার কি পাঁচ মাস হবে, পাশের বাড়ির ভাইয়ার কাবিন হলো। খবরটা শুনে অনেক খুশি হয়েছিলাম, কারণ উনার অনেক বয়স হয়ে গিয়েছিলো আর উনার মা সন্তানের জীবনসঙ্গী খুঁজতে অতিরিক্ত বাছাবাছি করতো। যাই হোক- মেয়েপক্ষ অনেক খরচ করে সেন্টার বুকিং দিয়ে কাবিনের আনুষ্ঠানিকতা করলো। কথা ঠিক হলো ঈদের পরে বৌকে শ্বশুর বাড়ি তুলে নিয়ে আসা হবে। এদিকে দু’দিন আগে হঠাৎ শুনি- তাদের বিয়ে নাকি ভেঙ্গে গেছে। ইন্নালিল্লা! কাহিনী কি? কি এমন ঘটলো!? আসলে ওই যে বললাম- কিছু কিছু ছেলের মা’দের সমস্যা!

কাবিন হয়ে যাওয়া মানেই তো বিয়ে, শুধু বৌকে তুলে নেয়া বাকি। তা, ছেলে মেয়ের সাথে দেখা করতে প্রায় শ্বশুরবাড়ি যায়। রাতে থেকেও আসে। কিন্তু যখনই মেয়ের সাথে দেখা করতে যায় তখনই ছেলের মায়ের পক্ষ থেকে কেমন জানি সন্দেহ। ফোনের ওপর ফোন করতে থাকে। যখনই ছেলে শ্বশুর বাড়ি যায়, তখনই এমন আচরণ। এ নিয়ে দু পক্ষে মনোমালিন্য। এক কথা দুই কথা, কথা বাড়তে বাড়তে ঝগড়াঝাটি অবস্থা, অবশেষে বিয়ে ভেঙ্গে গেলো।

ভাবছিলাম- সেই মেয়েটির কথা। না জানি কতো খারাপ লাগছে তার। মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় বিয়ে ভেঙ্গে গেলো! এই কয়েক মাসে কতো কিছুই না হলো! আর হওয়াটাও তো স্বাভাবিক- যেহেতু তারা স্বামী-স্ত্রী। এদিকে ভাইয়ার বিষয়টা বুঝলাম না, উনি কি একবারও সেই মেয়েটার কথা চিন্তা করলেন না? নাকি মায়ের আদেশের সামনে তার কোনো কথাই চললো না। যদিও একটা মেয়ের বিয়ে ভেঙ্গে গেলে তার পরবর্তীতে বিয়ে হওয়াটা মুসকিল হয়ে যায়। সেই মেয়ে যতই ভালো থাকুক- এটা হলো আমাদের সমাজের অবস্থা!

যাই হোক- এসব মা’রা বোধ হয় মানসিক রোগী! আল্লাহ আমাদের এমন রোগ থেকে রক্ষা করুন।

পোস্টটি ৪৮৭ বার পঠিত
 ০ টি লাইক
১ টি মন্তব্য
একটি মন্তব্য করা হয়েছে
  1. কি ভয়ংকর!! মেয়েটার জন্য খুব কষ্ট লাগতেছে… আহারে…
    মা আর ভাইয়াটা এমন করলোই বা কিভাবে!! আল্লাহ আমাদের এমন অমানবিক আচরণ করা ও এ ধরণের আচরণের শিকার হওয়া থেকে রক্ষা করুন।

আপনার মুল্যবান মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.