যোগ্যতা একটি আপেক্ষিক বিষয়
লিখেছেন অঘটন ঘটন পটীয়সী, আগস্ট ২৮, ২০১৬ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ
20160828_114601

মানুষ কত সহজে একজনের যোগ্যতা যাচাই করে ফেলে…
ফর্সা ভাবে কালোর কি যোগ্যতা আছে তার সামনে!শিক্ষিত কোন অশিক্ষিতের যোগ্যতা হিসাব করে ফেলে ক্যালকুলেটর ছাড়াই।লেখক ভাবে সে বিদ্যার জাহাজ,অন্য কেউ তার সামনে ডিঙ্গি নৌকাতূল্যও নয়।সেলিব্রেটির কাছে সাধারনের যোগ্যতা যতসামান্যই।পাবলিকের স্টুডেন্টের কাছে প্রাইভেট মানেই নর্দমা।

কেউ কেউ আবার ভাবে না, তাদের পক্ষ থেকে অন্যকেউই ভেবে দেয়….    যেমন :
-‘তুমি ওমুক তোমার সামনে তো তার কোন যোগ্যতাই নাই’
-‘তার কি যোগ্যতা আছে আমাকে বিয়ে করার’
-‘আরে বিসিএস হলে তো  তোমার বোনেরই লাভ,বিয়ের বাজারে দাম টা কত বেড়ে যাবে!’
-‘আরে কোথায় তুমি কোথায় সে!’
-‘কই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর কই হোম ইকোনোমিকস কলেজ’
-‘তার কি তোমার মত কোন বই আছে?’

আসলেই কি যোগ্যতা বলতে কিছু আছে বা অযোগ্যতা?বিষয়টা কিন্তু আপেক্ষিক।সবারই নিজস্ব কিছু সফলতা থাকে,এটাই তার যোগ্যতা।অন্যের সাথে তুলনা করলেই কারো যোগ্যতা প্রমান হয়ে যায়না।মানুষ, কত কিছুই পারি আবার কত কিছুই পারিনা।আমি যা পারি তা হয়ত আরেকজন পারে না আবার সে যা পারে তা হয়ত আমি পারিনা।এটাই তো প্রকৃতির নিয়ম।এভাবেই তো দুনিয়াটা চলছে।সবাই যদি সর্বগুনে গুনান্বিত হতো তাহলে নিশ্চয়ই সমাজেরই প্রয়োজন হতো না।সবাই একাএকাই থাকতে পারতো!
যেহেতু আমরা নিজেদের প্রয়োজনেই একসাথে থাকছি,চলছি ফিরছি তাই সবাই সবার প্রতি শ্রদ্ধাশীল হলেই সমাজটা সুন্দর থাকবে।
অকারনে কাউকে যোগ্যতা প্রমাণ করতে যেয়ে যদি  হরিণের শিং গরুর মাথায় লাগাই তাহলে হয়ত সৌন্দর্য ঠিকি বাড়বে কিন্তু গরু তার গুরু দায়িত্ব পালন করতে হিমশিম খাবে।

পোস্টটি ৫২৮ বার পঠিত
 ১ টি লাইক
২ টি মন্তব্য

Leave a Reply

2 Comments on "যোগ্যতা একটি আপেক্ষিক বিষয়"

Notify of
avatar
Sort by:   newest | oldest | most voted
লাল নীল বেগুনী
Member

যোগ্যতার ভিন্নতা মূলত মানসিকতায়। মনুষ্যবোধ, মানবিকতা, ভদ্রতা, সহনশীলতা, কৃতজ্ঞতা, আত্মসম্মান-বোধ, অহঙ্কারহীনতা ইত্যাদি দিয়েই মানুষ সত্যিকারের মানুষ হতে শুরু করে যোগ্য থেক যোগ্যতর হয়…

wpDiscuz